Home / Breaking News / পিআইবির চেয়ারম্যান হলেন খ্যাতিমান সাংবাদিক আবেদ খান

পিআইবির চেয়ারম্যান হলেন খ্যাতিমান সাংবাদিক আবেদ খান

আবেদ খান

সংবা পরিক্রমা: প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি) এর চেয়ারম্যান হলেন খ্যাতিমান সাংবাদিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা, দৈনিক জাগরণ-এর সম্পাদক ও প্রকাশক আবেদ খান।

সোমবার (১১ মার্চ) তথ্য মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে।

প্রবীণ সাংবাদিক আবেদ খানের জন্ম সাতক্ষীরায় ১৯৪৫ সালের ১৬ এপ্রিল। বাবা মরহুম আবদুল হাকিম খান ও মাতা মরহুমা আজরা খানম। মাত্র ১৭ বছর বয়সে ১৯৬২ সালে আবেদ খানের সাংবাদিকতায় হাতেখড়ি দৈনিক ‘জেহাদ’-এ। ১৯৬৩-তে তিনি দৈনিক ‘সংবাদ’-এ যোগদান করেন। ১৯৬৪ সালে দৈনিক ইত্তেফাক-এ যোগদান। ইত্তেফাকে আবেদ খান পর্যায়ক্রমে শিফট-ইনচার্জ, প্রধান প্রতিবেদক, সহকারী সম্পাদক ও কলামিস্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭২ সালের আগস্টে ইত্তেফাকে তাঁর ধারাবাহিক অনুসন্ধানী প্রতিবেদন ‘ওপেন সিক্রেট’ প্রকাশিত হতে থাকে। ‘ওপেন সিক্রেট’কে বলা যেতে পারে বাংলাদেশের তদন্তমূলক সাংবাদিকতার এক গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। এ সংক্রান্ত পড়াশোনায় ‘রেফারেন্স’ হিসেবে ‘ওপেন সিক্রেট’-এর বিশেষ খ্যাতি রয়েছে।

১৯৯৫ সালে আবেদ খান ইত্তেফাক থেকে অব্যাহতি নেওয়ার পর জনকণ্ঠে সম্পাদকীয় পাতায় তাঁর ‘অভাজনের নিবেদন’ প্রকাশের পাশাপাশি প্রথম পাতায় ‘লেট দেয়ার বি লাইট’ শিরোনামের মন্তব্য প্রতিবেদন প্রকাশ হতে থাকে। ‘গৌড়ানন্দ কবি ভনে শুনে পুণ্যবান’ কলামটি জনকণ্ঠে প্রকাশিত তাঁর স্যাটায়ার-ধর্মী জনপ্রিয় কলাম। সেই সময় দৈনিক ভোরের কাগজ-এর প্রথম পাতায় তাঁর ‘টক অব দ্য টাউন’ শিরোনামের মন্তব্য প্রতিবেদনটি তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। একই কাগজে সে-সময় তাঁর উপসম্পাদকীয় কলাম ‘প্রাঙ্গণে বহিরাঙ্গনে’ প্রকাশ হতে থাকে। দৈনিক সংবাদে তিনি ‘তৃতীয় নয়ন’ নামে একটি অন্তর্দৃষ্টি-বিশ্লেষণাত্মক কলাম ধারাবাহিকভাবে লিখতে থাকেন। ১৯৯৮ সালে নতুন দৈনিক প্রথম আলো-তে ‘কালের কণ্ঠ’ শিরোনামে তাঁর উপসম্পাদকীয় কলাম প্রকাশ হতে থাকে। পরে ২০০৯ সালে আবেদ খানের নেতৃত্বে ‘কালের কণ্ঠ’ নামের একটি দৈনিক পত্রিকা বাজারে আসে। ১৯৯৯ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি একুশে টেলিভিশনের সংবাদ ও চলতি তথ্য বিষয়ে প্রধান হিসেবে কাজ করেন। এর আগে ১৯৯৬-’৯৯ সালে বিটিভি-তে প্রচারিত তাঁর অনুসন্ধানমূলক টেলিভিশন রিপোর্টিং সিরিজ ‘ঘটনার আড়ালে’ টেলিভিশন-সাংবাদিকতার আরেকটি জনপ্রিয় চূড়া। ২০০৯ সাল থেকে তিনি দৈনিক কালের কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১১ সালের ৩০ জুন কালের কণ্ঠ থেকে পদত্যাগের পর তিনি ২০১২ সালের জুন মাসে বেসরকারি টেলিভিশন এটিএন নিউজের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা ও প্রধান সম্পাদক হিসেবে যোগদান করেন। ২০১৩ সালের এপ্রিলে তিনি এটিএন নিউজ থেকে পদত্যাগ করেন। বর্তমানে তিনি দৈনিক ‘জাগরণ’ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক। এর আগে তিনি ২০০৩-২০০৫ সালে দৈনিক ‘ভোরের কাগজ’, ২০০৫-২০০৬ সালে দৈনিক ‘যুগান্তর’, এবং ২০০৬-২০০৯ সালে দৈনিক ‘সমকাল’-পত্রিকার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘‘প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ ( পিআইবি) আইন ২০১৮ এর ধারা ৭ অনুযায়ী সরকার পিআইবির পরিচালনা বোর্ড গঠন করলেন। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী দৈনিক জাগরণ-এর সম্পাদক ও প্রকাশক আবেদ খান চেয়ারম্যান, সদস্য- তথ্য মন্ত্রণালয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের যুগ্ম সচিব মর্যাদার একজন করে প্রতিনিধি, প্রধান তথ্য অফিসার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান, ভোরের কাগজ-এর সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বাংলাদেশ পোস্ট-এর প্রধান সম্পাদক শরীফ শাহাবুদ্দিন, একাত্তর টেলিভিশন-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের কোষাধ্যক্ষ দীপ আজাদ, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য শেখ মামুনুর রশীদ, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বেগম ফরিদা ইয়াসমিন, বাসস-এর বিশেষ সংবাদদাতা অনুপ খাস্তগীর। বোর্ডের সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালন করবেন পিআইবির মহাপরিচালক।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

তামিম

তামিম ইকবালের জন্মদিন আজ

সংবাদ পরিক্রমা: তিনিই বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান কিনা? তা নিয়ে প্রশ্ন থাকতেই পারে। তবে তামিম ...