Home / Breaking News / জিম্বাবুয়েকে অল-আউট করল টাইগাররা

জিম্বাবুয়েকে অল-আউট করল টাইগাররা

65

সংবাদ পরিক্রমা: টাইগারদের টার্গেট ছিল দ্বিতীয় ইনিংসে জিম্বাবুয়েকে দেড়শর মাঝে অল-আউট করে দেওয়া। কিন্তু সেই লক্ষ্য অতিক্রম করে আরও কিছুটা এগিয়ে গিয়ে থামল সফরকারীরা। দ্বিতীয় ইনিংসে জিম্বাবুয়ে অল-আউট হলো ১৮১ রানে। প্রথম ইনিংসে তাদের লিড ছিল ১৩৯ রানের। যে কারণে সিলেট টেস্ট জিততে হলে স্বাগতিক বাংলাদেশকে করতে হবে ৩২১ রান। ড্র করতে হলে খেলতে হবে প্রায় আড়াই দিন!

আজ সোমবার ম্যাচের তৃতীয় দিনের প্রথম ৪৫ মিনিট বেশ ভালোই কাটিয়ে দেয় জিম্বাবুয়ে। এরপর দলীয় ১৯ রানে মেহেদী মিরাজ ব্রায়ান চারিকে (৪) বোল্ড করে দিয়ে দলকে ব্রেক থ্রু এনে দেন। উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পর অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেইলরকে নিয়ে জুটি গড়ার পথে ছিলেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ২৮ রান আসতেই তাইজুল ইসলামের বলে টেইলরের (২৪) দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়েছেন ইমরুল কায়েস।

জিম্বাবুয়ের তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটান মিরাজ। শেন উইলিয়ামসের সঙ্গে ৫৪ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি গড়ে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা (৪৮) মিরাজের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন। তারপর আবারও তাইজুলের আঘাত। বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন শেন উইলিয়ামস (২০)। প্রথম ইনিংসে অপরাজিত হাফ সেঞ্চুরি করা পিটার মুরকেও (০) লিটন দাসের তালুবন্দি করেন তাইজুল। ফিরতি ওভারে এসে এই স্পিনার বোল্ড করে দেন বিপজ্জনক সিকান্দার রাজাকে (২৫)।

রাজাকে বোল্ড করেই ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো এক টেস্টে ১০ উইকেট শিকার করেন তাইজুল। প্রথম ইনিংসে নিয়েছিলেন ৬ উইকেট। রাজার বিদায়ের পর জুটি গড়ার চেষ্টা করেন চাকাভা এবং উইলিয়াম মাসাকাদজা। জুটিতে ৩৫ রান আসার পর উইলিয়ামকে (১৭) এলবিডাব্লিউ করে তৃতীয় শিকার ধরেন মিরাজ। চাকাভাকে (২০) মাহমুদউল্লাহর তালুবন্দি করে ইনিংসে নিজের প্রথম উইকেট নেন নাজমুল অপু। একই ওভারের শেষ বলে আরিফুলের হাতে ধরা পড়েন মাভুতা (৬)।

শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ৮ রান করা চাতারাকে এলবিডাব্লিউ করে ম্যাচে দ্বিতীয়বারের মতো ৫ উইকেট দখল করেন তাইজুল। রান দেওয়াতেও ভীষণ কৃপণ ছিলেন এই স্পিনার। ২৮.৪ ওভারে দিয়েছেন মাত্র ৬২ রান।তবে সবচেয়ে কৃপণ ছিলেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। ৪ ওভারে দিয়েছেন ৭ রান। জিম্বাবুয়ে অল-আউট হলো ১৮১ রানে।

এর আগে গতকাল রবিবার ম্যাচের দ্বিতীয় দিনের জিম্বাবুয়ের ২৮২ রানের জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংস খেলতে নেমে ১৯ রানে ৪ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এই ধস আর থামানো যায়নি। শেষ দুই সেশন শেষ না হতেই ১৪৩ রানে অল-আউট হয়ে যায় স্বাগতিক বাংলাদেশ। অভিষিক্ত আরিফুল হক খেলেছেন সর্বোচ্চ ৪১ রানের অপরাজিত ইনিংস। ১৩৯ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় দিনে তারা বিনা উইকেটে ১ রান তুলেছিল।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জব্বার

ছুটির দিনেও ভেজাল প্রতিরোধে ভোক্তা অধিকারের হানা, জরিমানা ৪৫ হাজার

সংবাদ পরিক্রমা ডেক্স: রাজধানীর মিরপুর-১ এলাকায় মেয়াদোত্তীর্ণ ও ভেজাল ওষুধ/পণ্য বিক্রি, পণ্যের গায়ের মুল্য তালিকা ...