Home / Breaking News / চ্যালেঞ্জ নিয়ে নির্বাচনী মাঠে নামছেন কামরান

চ্যালেঞ্জ নিয়ে নির্বাচনী মাঠে নামছেন কামরান

সংবাদ পরিক্রমা: চ্যালেঞ্জ নিয়ে নির্বাচনী মাঠে নামছেন কামরান। এবার আর প্রার্থী নয়। সিলেট-১ আসনে মহাজোট প্রার্থী ড. একে আবদুল মোমেনের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান হিসেবে তিনি সক্রিয় হয়েছেন। সঙ্গে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদও। এই দু’জনের উপর ভরসা রেখে এবারের নির্বাচনে নতুন প্রার্থী ড. মোমেনকে নিয়ে লড়াইয়ে নামছে আওয়ামী লীগ। তবে কামরানের সাফ কথা- নিজের নির্বাচনে তিনি সব দেখেও দেখেননি। এবার আর তা হবে না। শুধু প্রকাশ্যেই নয় আড়ালে থেকেও যারা নৌকার বিপক্ষে কাজ করবে তাদের আর ছাড় দেয়া হবে না।

আসাদও এবার আরো বেশি কঠোর। এবার সব কিছু মনিটরিংও করা হবে।
মর্যাদাপূর্ণ সিলেট-১ আসনে গতকাল পর্যন্ত একক প্রার্থী চূড়ান্ত করতে পারেনি বিএনপি। কিন্তু নির্বাচনের শুরুতেই একক প্রার্থী ঘোষণা করে প্রস্তুতিতে এগিয়ে গেছে আওয়ামী লীগ। প্রচারণা শুরু না হলেও ঘরোয়া বৈঠকিতে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ব্যস্ত থাকছেন ড. একে আবদুল মোমেন।

আর প্রস্তুতিটা শুরু করে দিয়ে গেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত নিজেই। ছোটো ভাইয়ের মনোনয়নপত্র জমা দিতে তিনি গেল সপ্তাহে সিলেটে এসেছিলেন। টানা তিন দিন নিজ বাসায় থেকে সব প্রস্তুতি শুরু করে ঢাকা গেছেন। শনিবার সিলেট ছাড়ার প্রাক্কালে অর্থমন্ত্রী বসেছিলেন সিলেট আওয়ামী লীগের ৫ শীর্ষ নেতাকে নিয়ে। এরা হলেন- আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও মহানগর সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান, সিলেট জেলার সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদ উদ্দিন আহমদ।

অর্থমন্ত্রী তাদের সঙ্গে বৈঠক করে নির্বাচনের প্রস্তুতির দিক নির্দেশনা দিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন বৈঠকে উপস্থিত থাকা নেতাকর্মীরা। একই সঙ্গে বলে গেছেন যেখানে তাকে প্রয়োজন হবে ডাকলেই তিনি চলে আসবেন। ৫ নেতাকে নিয়ে বৈঠকের পরদিনই সিলেটে বর্ধিত সভার আয়োজন করে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ। আর ওই সভায় সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগ তথা মহাজোট প্রার্থী ড. একে আবদুল মোমেনের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটির প্রধান করা হয়েছে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান ও সদস্য সচিব করা হয়েছে মহানগর সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদকে। এর বাইরে সিলেট সদর উপজেলায়ও নির্বাচন পরিচালনার জন্য আরো একটি কমিটি গঠন করা হবে। সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বৈঠক ডাকা হয়েছে ৮ই ডিসেম্বর। ওই দিন পরিচালনা কমিটি করা হবে।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ জানিয়েছেন, সিলেটে নৌকার পক্ষে জোয়ার উঠেছে। অর্থমন্ত্রী সিলেটের উন্নয়ন করেছেন। এ নিয়ে সিলেটের মানুষের সন্তুষ্টি আছে। এখন আমরা সঠিকভাবে নৌকার দাওয়াত পৌঁছাতে পারলে জয় আমাদেরই হবে।

সিলেট-১ আসনে কখনো কোনো রাজনৈতিক দল একক কর্তৃত্ব ধরে রাখতে পারেনি। ১৯৯৬ সালে এ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন সাবেক স্পিকার হুমায়ূন রশীদ চৌধুরী। ২০০১ সালে সেই আসনটি আবার পুনরুদ্ধার করেছিলেন বিএনপির সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম সাইফুর রহমান। পরবর্তীতে ২০০৮ সালের নির্বাচনে এ আসনে জয় পান আওয়ামী লীগের আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি টানা ১০ বছর ধরে এই আসনে এমপি। সূত্র: মানবজমিন

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

32

নৌকাকে বিজয়ী করতে না পারলে বিএনপি জামায়াত দেশকে ধ্বংস করে দেবে

সংবাদ পরিক্রমা: দিনাজপুর সদর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য প্রার্থী ও জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর ...