Home / Breaking News / খালেদার নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত মুলতবি

খালেদার নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত মুলতবি

৭৬৮

সংবাদ পরিক্রমা: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত মুলতবি করেছেন আদালত। এর আগে আজ সকালে নাইকো দুর্নীতি মামলার বিচারের জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল থেকে আদালতে নেয়া হয়। নাজিমুদ্দিন রোডের পুরানো কেন্দ্রীয় কারাগার ভবনে ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের অস্থায়ী এজলাস বসানোর আদেশ জারির পর তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে আদালতে হাজির করা হয় খালেদা জিয়াকে। আজ নাইকো দুর্নীতি মামলার চার্জ শুনানির দিন ধার্য্য ছিল। শুনানিতে মামলার অন্যতম আসামি ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ তার পক্ষে নিজেই শুনানিতে অংশ নেন। খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবি সানাউল্লাহ মিয়ার আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত শুনানি মুলতবি করেন। পরে বেলা সোয়া ১টায় খালেদা জিয়াকে পরিত্যক্ত কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়া উপলক্ষে সকাল থেকেই বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এবং নাজিমুদ্দিন রোডের কারাগার এলাকায় নেয়া হয় ব্যাপক নিরাপত্তা।

পুলিশের একটি প্রাইভেট কারও প্রস্তুত রাখা হয়। এ প্রাইভেট কারে করেই হাসপাতাল থেকে কারাগারের অস্থায়ী আদালতে হাজির করা হয়। এর আগে সকালেই হাসপাতাল থেকে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত জিনিসপত্র আরেকটি গাড়িতে করে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। ৩২ দিন পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর ফের তাকে কারাগারে নেয়া হলেঅ। গত ৬ই অক্টোবর খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ হাসপাতালে নেয়া হয়। গত ১১ অক্টোবর রাজধানীর বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯ এর বিচারক মাহমুদুল হাসান নাইকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য ৮ই নভেম্বর দিন ধার্য করেছিলেন। কানাডীয় প্রতিষ্ঠান নাইকোর সঙ্গে অস্বচ্ছ চুক্তির মাধ্যমে রাষ্ট্রের আর্থিক ক্ষতি সাধন ও দুর্নীতির অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম ২০০৭ সালের ৯ই ডিসেম্বর তেজগাঁও থানায় নাইকো দুর্নীতি মামলাটি দায়ের করেন।

খালেদা জিয়াকে ছাড়পত্র দিয়েই কারাগারে পাঠানো হয়েছে: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা যথেষ্ট স্থিতিশীল রয়েছে। তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দিয়েই কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল্লাহ আল হারুন। খালেদাকে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেয়ার পর বিএসএমএমইউ পরিচালক এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। হাসপাতাল পরিচালক বলেন, খালেদা জিয়ার বয়সজনিত কারণে হাঁড়ের ক্ষয়ের চিকিৎসা চলমান থাকবে। হাসপাতালে যেসব পরীক্ষা-নীরিক্ষা করা হয়েছে তার রিপোর্ট ভালো। ইতিবাচক অর্থে তার শারীরিক অবস্থা যথেষ্ট স্থিতিশীল রয়েছে। এজন্য ১১ টা ৩০ মিনিটে খালেদা জিয়াকে ছাড়পত্র দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

৬১২ নাম্বার রুম: খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়ার পর পরই হাসপাতালে চিকিৎসারত তার কেবিন ব্লকের ৬ তলার ৬১২ নং রুমে ধুয়া মোছার কাজ করা হয়। রুমটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করার পর এখানে অন্যান্য রোগীদের রাখা হবে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জব্বার

ছুটির দিনেও ভেজাল প্রতিরোধে ভোক্তা অধিকারের হানা, জরিমানা ৪৫ হাজার

সংবাদ পরিক্রমা ডেক্স: রাজধানীর মিরপুর-১ এলাকায় মেয়াদোত্তীর্ণ ও ভেজাল ওষুধ/পণ্য বিক্রি, পণ্যের গায়ের মুল্য তালিকা ...